কাজল পরতে গিয়ে চোখ ভিজে যায় ক্যান্সার আক্রান্ত আপনাদের সোনালীর

30
কাজল পরতে গিয়ে চোখ ভিজে যায় ক্যান্সার আক্রান্ত সোনালীর

কাজল পরতে গিয়ে- অনেক দিন থেকে ক্যান্সারে আক্রান্ত বলিউডের এক সময়ের পর্দা কাঁপানো অভিনেত্রী সোনালি বেন্দ্রে। নিউ ইয়র্কে চলছে তার ক্যান্সারের চিকিত্সা।

এখন রোগের চতুর্থ স্তরে আছেন সোনালি। নিয়মিত চলছে তার কেমো থেরাপি। এই অসুস্থতার মাঝেও তাকে সব সময় পাওয়া গেছে হাসি মুখে। মনের জোর হারাননি কখনোই।

হৃত্বিক রোশনের প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খানের সঙ্গে হাসি মুখে সময় কাটাতে দেখা গেছে তাকে। অসুস্থ ঋষি কাপুরকে দেখতে ছুটে গিয়েছিলেন। কিন্তু এই হাসি মুখের মানুষটির মনে কতো কষ্ট লুকানো সেটা কি কেউ জানে!

সম্প্রতি নিজের টুইটারে একটি ছবি শেয়ার করেন সোনালী। যেখানে দেখা যাচ্ছে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে কাজল পরছেন তিনি। ওই ছবির সঙ্গে আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন সোনালি।

তিনি জানান , মাঝে মধ্যে ভয় যেন এসে ঘিরে ধরে তাকে। শরীরের কষ্ট এবং মানসিক অস্থিরতা শেষ করে দেয় তাকে। কেমোথেরাপির মাঝে তিনি যেন অস্থির হয়ে ওঠেন। তখন যেন কান্না পেয়ে যায়।

এই কঠিন সময় মনকে শক্ত করে রাখতে হয়। কিন্তু, চিকিৎসা এবং যন্ত্রণার মাঝে যদি কখনও আবেগ এসে ঘিরে ধরে, তাহলে কিছু করার নেই বলেও ওই স্ট্যাটাসে জানান সোনালী।

সম্প্রতি ক্যান্সারের চিকিত্সার জন্য নিউইয়র্ক পাড়ি দিয়েছেন ঋষি কাপুর। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হয় সেই খবর। ঋষি কাপুর মরণ রোগের তৃতীয় স্তরে রয়েছে বলেও শোনা যায়।

ঋষি কাপুরকে দেখতে যখন তার নিউ ইয়র্কের এপার্টমেনটে ছুটে যান প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, সেই সময় পিগির সঙ্গে হাজির হন সোনালিও। জানা যায়, ঋষি কাপুরের মনের জোর বাড়াতেই অসুস্থ শরীর নিয়ে ঋষি কাপুরকে দেখেতে চলে যান বলিউডের এই অভিনেত্রী।

পরিচালকের কু প্রস্তাব: থাপ্পড় মারার হুমকি অভিনেত্রীর

একের পর এক ‘মি টু’ ক্যাম্পেইন অর্থাৎ যৌন হয়রানি নিয়ে মুখ খুলছেন বলিউডের তারকারা। ধীরে ধীরে এই তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে। সম্প্রতি বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা অভিযোগ করেন যে- ‘কুইন’-এর শুটিংয়ের সময় বিকাশ বহেল তার সঙ্গে অত্যন্ত অশালীন ব্যবহার করেছেন।

কঙ্গনার পর এবার বিকাশের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন আরও এক অভিনেত্রী। যদিও তার নাম এখনও প্রকাশ্যে আসেনি। তবে ওই অভিনেত্রীর পর ‘কুইন’-এর আরও এক অভিনেত্রী বিকাশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন।

নয়নি দীক্ষিত নামে ওই অভিনেত্রী বলেন, ‘লন্ডন দা ঠুমকা’-র শুটিংয়ের সময় বিকাশ তাকে একটি ‘টু স্টার’ হোটেলে রাখার ব্যবস্থা করেন। যেখানে থাকতে তার আপত্তি ছিল।

এ কথা বিকাশকে জানাতেই তিনি বলেন, নয়নি ইচ্ছা করলে বিকাশের ঘরে থাকতে পারেন। কিন্তু পরিচালকের সেই প্রস্তাব মেনে নেননি নয়নি। শুধু তাই নয়, ভবিষ্যতে তার সঙ্গে অসভ্যতা করতে চাইলে, বিকাশকে কষিয়ে থাপ্পড় মারবেন বলেও হুমকি দেন অভিনেত্রী।

আর এরপর থেকেই নাকি বিকাশ তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার শুরু করেন। ওই ঘটনার পরদিন শুটিং করতে গেলে বিকাশ সবার সামনে তাকে অপমান করেন। এরপরই নয়নি বুঝতে পারেন, আসল ঘটনা কী?

বিকাশের নোংরা প্রস্তাব তিনি মেনে নেননি বলেই তার সঙ্গে এই ধরনের বাজে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন নয়নি।

নয়নি আরও বলেন, ‘বিকাশের টিমে দিল্লির অন্য একজন ছিলেন। যিনি কাস্টিং গ্রুপে ছিলেন। ২১ বছর বয়সী ওই তরুণীর সঙ্গেও বিকাশ অশালীন ব্যবহার করতেন বলে অভিযোগ করেন নয়নি।

অবশেষে যৌন হেনস্তা প্রসঙ্গে মুখ খুললেন কাজল

তনুশ্রী দত্ত নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ আনার পর থেকেই সরগরম বলিউড। তারপর থেকে এই তালিকায় একে একে উঠে আসছে আরো বহু বিখ্যাত মানুষের নাম। টুইঙ্কল খান্না, প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, কঙ্গনা রানাউত ইত্যাদি বহু অভিনেত্রীকে নিজেদের মতামত প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছে।

সম্প্রতি ‘হেলিকপ্টার ইলা’র প্রোমোশনে কলকাতায় উপস্থিত হন কাজল-সহ ছবির পরিচালক প্রদীপ সরকার, ঋদ্ধি সেন ও টোটা রায়চৌধুরী। সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রশ্নের মাঝেই উঠে আসে #MeToo প্রসঙ্গ।

এক সাংবাদিক কাজলকে প্রশ্ন করেন তনুশ্রী দত্তের অভিযোগের ভিত্তিতে একে একে যে সমস্ত ঘটনা সকলের সামনে উঠে আসছে সে প্রসঙ্গে কাজলের কী বক্তব্য? উত্তরে কাজল জানান, প্রথমেই বলব #MeToo ক্যাম্পেইন এমন কিছু মানুষ শুরু করেছিল যাঁরা জানতে চেয়েছিল তাঁদের সঙ্গে ঠিক কী ঘটেছে।

তাঁদের লজ্জা দূর করতে তাঁরা সকলের সঙ্গে সমস্ত লাঞ্ছনার কথা ভাগ করে নিতে চেয়েছিল। আর আমার মনে হয় এই মুহূর্তে যা কিছু ঘটছে সেটাও একই কারণেই ঘটছে। আর আমার মনে হয় যে সব মানুষের সঙ্গে এসব ঘটছে এবং আরো যে সব মানুষ রয়েছেন এবার তাঁদের সাহস করে একটা সীমারেখা টানা উচিত যে, এটাই শেষ। আর নয়।

তনুশ্রী দত্ত নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার পর একে একে বলিউডের আরো বেশ কিছু নাম এই তালিকায় যোগ হয়েছে। তাদের মধ্যে অভিনেতা রজত কাপুর, পরিচালক বিকাশ বহল ও অভিনেতা অলোকনাথের নাম উল্লেখযোগ্য।